মেইন ম্যেনু

৪১ মাসের মধ্যে দেশে সর্বনিম্ন মূল্যস্ফীতি

দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার বড় অংকে কমেছে। সবশেষ প্রাপ্ত তথ্য মতে, ফেব্রুয়ারিতে মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৬২ শতাংশে; যা গত এক মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরের পর এই প্রথম মূল্যস্ফীতির হার এতোটা কমলো।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল মঙ্গলবার এই হালনাগাদ তথ্য প্রকাশ করেন। রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর এই হালনাগাদ চিত্র তুলে ধরেন।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের মূল্যস্ফীতি দীর্ঘদিন ৬ শতাংশের ওপরে ছিল। সবশেষ ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে এই হার ছিল ৪ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

কেন কমেছে মূল্যস্ফীতি- এমন প্রশ্নে কামাল বলেন, বাজারে পণ্যের সরবরাহ ভালো। চাহিদার তুলনায় পণ্য বেশি। ফলে বিদেশ থেকে আমদানিও করতে হচ্ছে না। অন্যদিকে, যা আমদানি করতে হচ্ছে, কিন্তু টাকার মান স্থিতিশীল থাকায় তার ব্যয়ও বাড়ছে না। ফলে মূল্যস্ফীতি কমেছে। আমরা আশা করি, চলতি বছরে আমাদের বেধে দেয়া লক্ষ্য মাত্রার মধ্যেই থাকবে মূল্যস্ফীতি।

গত জানুয়ারি মাসে মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ দশমিক ০৭ শতাংশ।

ফেব্রুয়ারিতে খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ। আর খাদ্য বহির্ভূত মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

শহর পর্যায়ে মূল্যস্ফীতির হার ৭ দশমিক ২২ ভাগ, ফেব্রুয়ারিতে যা ছিল ৭ দশমিক ৫৩ ভাগ। অন্যদিকে, গ্রামে এ হার ৪ দশমিক ৭৬ ভাগ।






মন্তব্য চালু নেই