মেইন ম্যেনু

৫টি কার্যকরী উপায়ে করুন অনলাইনে পণ্যের মার্কেটিং

আজকের তরুণ সমাজ আর বেকার নেই। সবাই কিছু না কিছু করছে। ফেসবুকে বিনামূল্যে পেজ খুলে ছোট পরিসরে ব্যবসা খুলছেন অনেকে। স্বল্প মূলধন লাগে বলে বিনিয়োগ নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় না তেমন। নিজের পায়ে দাঁড়ানোর চমৎকার এই সুযোগ গ্রহণ করছেন অনেক উদ্যোক্তা। কিন্তু ব্যবসা তো নাহয় খোলা গেল কম খরচে। ব্যবসা বাড়াতে হলে প্রচারে তো যেতেই হবে। এছাড়া বিকল্প কোন উপায় নেই।

বেছে নিন এই কৌশলগুলো-

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করুন
আপনার কাজগুলো ফেসবুক, ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করুন। এটি প্রচারণার সবচেয়ে সহজ বুদ্ধি। আপনার প্রফাইল থেকে সহজেই বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দিন নিজের কাজ। ফেসবুক পেজ থেকেই আপনি পাচ্ছেন ‘ইনভাইট’ অপশন। সেটি ব্যবহার করে সরাসরি বন্ধুদের আহবান করুন ‘লাইক’ দিতে। বিভিন্ন গ্রুপে শেয়ার দিন। আপনার পণ্যের ক্রেতা হতে পারে এমন মানুষদের মাঝে ট্যাগ দিন পণ্যের ছবিতে। তবে অবশ্যই আগে অনুমতি নিয়ে নিন।

নিজস্ব বক্তব্য প্রচার করুন
পেজ এ পণ্যের সাথে অবশ্যই জুড়ে দিন কিছু কথা আপনার ক্রেতাকে সহজে আকৃষ্ট করবে। মানুষ এখন নানান দিকে ঠকতে ঠকতে ক্লান্ত। তারা ভরসা করতে চায়। বিশ্বাস করতে চায়। আপনার প্রচারণামূলক বক্তব্যে তাদেরকে আস্থা দেবার চেষ্টা করুন পণ্যের গুণাগুণ সম্পর্কে। আপনি যে পণ্য বিক্রী করছেন সে সম্পর্কে পড়াশোনা করুন, আর্টিকেল লিখুন। এতে ক্রেতা জানবে যে আপনি যা করছেন বুঝেই করছেন। এভাবেই তৈরি হবে বিশ্বাস।

বন্ধুদের সাহায্য নিন
প্রচারণায় বন্ধুদের সাহায্য নিন। আপনার যদি ফেসবুকে ২০০ জন বন্ধুও থাকে তাহলে তাদের মাধ্যমে আরও ২০০ জন করে ৪০,০০০ মানুষের কাছে পৌছতে পারবেন আপনি। আপনার বন্ধুরা আপনার শক্তি। এই শক্তি কাজে লাগান। তাদেরকে উতসাহিত করুন পণ্যের ছবি শেয়ার দিতে, ছড়িয়ে দিতে যতটুকু পারা যায়।

সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন মাধ্যম হল গ্রাহক
আপনার গ্রাহককে খুশী করুন। একজন গ্রাহক যখন আপনার পণ্য পেয়ে খুশী হয়ে আরও ১০ জনকে এর সুনাম করে তখন কিন্তু চমৎকার একটি প্রচারণা হয়ে যায়। এর চেয়ে কার্যকরি এবং বিশ্বস্ত প্রচারণা আর হয় না। তাই ক্রেতাকে সবসময় ভাল পণ্য দিন। পণ্যের গুণের সাথে কখনো সমঝোতা করবেন না।

ক্রিয়েটিভ হন
আপনার পণ্যের উপস্থাপনায় প্রকাশ করুন ভিন্নতা। হাজারো একই পণ্যের বাজারে আপনার কোম্পানির পণ্যটি যাতে চোখে পড়ে সেদিকে খেয়াল করুন। মন কাড়তে, চোখকে আকৃষ্ট করতে ভিন্নধর্মী উপস্থাপনার বিকল্প নেই। অবশ্যই একইসাথে শব্দের ক্ষমতার কথা ভুলবেন না। পণ্যের বৈশিষ্ঠ্য তুলে ধরুন এমন শব্দে যেন পড়েই মনে হয় এটি একটি বিশেষ পণ্য। অন্য সব পণ্যের মত দেখতে হলেও আসলে সব পণয় থেকে আলাদা।






মন্তব্য চালু নেই