মেইন ম্যেনু

৫০ হাজার টাকা বেতন দেয়, ৭.৫% ভ্যাট পারবে না?

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে টিউশন ফি’র ওপর আরোপিত ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলছেন, ‘তারা ৫০ হাজার ৩০ হাজার টাকা বেতন দিতে পারে। আর মাত্র ৭ দশমিক ৫ শতাংশ দিতে পারবে না কেন? তাদের আন্দোলনে আমার কোনো সমর্থন নেই।’

বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া ৪টায় সিলেট সার্কিট হাউজে সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

এর আগে গত ১৪ আগস্ট সিলেটের বাগবাড়িস্থ এমিতখানায় খাবার বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত ভ্যাট কমানো হবে না। যেটা নির্ধারণ করা হয়েছে সেটাই বহাল থকবে।’

এর পরই মূলত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করে। তারা সারা দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যানারে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল বুধবার ঢাকায় শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে। বৃহস্পতিবারও ঢাকা-সিলেট-চট্টগ্রামসহ সারা দেশে আন্দোলন চলছে।

এমন পরিস্থিতিতে সিলেট সার্কিট হাউজে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, ‘যে ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে, তা প্রত্যাহার করা হবে না।’

এই ভ্যাটকে ‘রাজস্ব সংগ্রহের অন্যতম উৎস’ বলে মন্তব্য করে মুহিত বলেন, ‘আমাদের রাজস্ব সংগ্রহের উৎস কোথায়? বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর আরোপিত ভ্যাট রাজস্ব সংগ্রহের একটি ভালো উৎস হতে পারে।’

এর আগে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এই ভ্যাট শিক্ষার্থীদের দিতে হবে না, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে আদায় করা হবে।

তবে এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো টিউশন ফি বাড়ানোর সুযোগ পাবে না বলেও সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- সংসদ সদস্য মাহমুদুস সামাদ চৌধুরী কয়েছ, ইমরান আহমদ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ ও সাবেক এমপি সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই