মেইন ম্যেনু

৫ দিন আটকে ছাত্রী নির্যাতন, ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

সোনাগাজী সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রী প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় ৫ দিন ধরে আটকে রেখে নির্যাতন করেছে কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক টুটুল পাটোয়ারী। এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে টুটুল পাটোয়ারিকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ১৯ জুলাই ঈদ উপলক্ষে ছাত্রীকে কৌশলে ডেকে এনে সোনাগাজী সরকারি কলেজের গেট থেকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। ২৩ জুলাই সকালে সোনাগাজী বাসস্ট্যান্ড থেকে পুলিশ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে। পরে ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা ও আদালতে জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়।

পুলিশ ও পরিবার সুত্রে জানা যায়, সোনাগাজী সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রীকে (১৮) দীর্ঘদিন ধরে কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক টুটুল পাটোয়ারী ও রুমেল প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তারা কোনো সাড়া না পেয়ে গত ১৯ জুলাই ঈদ উপলক্ষে কৌশলে ডেকে আনে। ওই ছাত্রী কলেজ গেটে আসা মাত্রই টুটুল পাটোয়ারী ও তার সহযোগী রুমেলসহ অজ্ঞাত নামা ২ ব্যক্তি তাকে জোর করে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। ছাত্রীর বাবা-মা খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে সোনাগাজী মডেল থানা ও ফেনী র‌্যাব ক্যাম্পে অভিযোগ দেন।

পরে পুলিশ অভিনব কায়দায় টুটুল পাটোয়ারীকে আটক করে। আটকের পর টুটুল পাটোয়ারি এবিষয়ে পুলিশকে কিছুই স্বীকার করেনি। অবশেষে বৃহস্পতিবার সকালে টুটুলের সহযোগীরা কলেজছাত্রীকে ফেনী থেকে একটি সিএনজি যোগে সোনাগাজীতে পাঠিয়ে দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ছাত্রীকে সোনাগাজী বাসস্ট্যান্ড থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ছাত্রীর বাবা জাকির হোসেন বাদী হয়ে ছাত্রলীগ নেতা টুটুল পাটোয়ারী (২৩) রুমেলসহ (২৪) অজ্ঞাত নামা ২ জনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুল হক জানান, ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম হাজারীর নির্দেশে সোনাগাজী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক টুটুল পাটোয়ারিকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নবীর হোসেন জানান, কলেজছাত্রীকে ল্যাপটপ দেয়ার কথা বলে টুটুল পাটোয়ারী, রুমেলসহ দু’জন ব্যক্তি তাকে জোর করে ফেনীর একটি বাসায় নিয়ে হাত, পা, বেধে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করেছে। টুটুলের গ্রেপ্তাতারের খবর শুনে রুমেল বৃহস্পতিবার সকালে তাকে একটি সিএনজি যোগে সোনাগাজীতে পাঠিয়ে দিয়েছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

উদ্ধারকৃত ছাত্রীকে শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই