মেইন ম্যেনু

৬ বছরের কনেকে বিয়ে করলেন ৩৬ বছরের বর

বিয়ের পাত্রী নাকি জুটছিল না রতনলালের! মানে যেমনটি তিনি চান, তেমনটি পাচ্ছিলেন না। তাই, বেছে বেছে এমন একজনের গলায় তিনি মালা দিয়েছেন, যে কিনা তাঁর হাঁটুর বয়সি। এ ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের চিতোরগড়ের।

আক্ষরিক অর্থেই ‘পুতুল খেলা’র বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয়েছে ছোট্ট মেয়েটিকে। ছয় বছরের ওই পাত্রীর সঙ্গে যাঁর বিয়ে দেওয়া হয়েছে, তাঁর বয়স ৩৬। আইন অগ্রাহ্য করে এ ধরনের বাল্যবিবাহ দেওয়ার ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পরই তা খতিয়ে দেখে প্রশাসন।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, গত অক্ষয় তৃতীয়ার দিন রাজস্থানের গণেশপুরার বাসিন্দা রতনলাল জাঠের সঙ্গে বিয়ে হয় ওই বালিকার। বছর ছয়েকের ওই বালিকাবধূর বাড়ি চিতোরগড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চল গাংরারে। পুলিশি জেরার মুখে পড়ে রতনলাল জানান, বয়স বেড়ে যাওয়ায় পাত্রী খুঁজে পাচ্ছিলেন না তিনি। তাই তিনি নিজের সম্প্রদায়ের মধ্যেই ওই মেয়েটিকে বিয়ে করেছেন।

জানা গিয়েছে, রাজস্থানের এই সম্প্রদায়ের মধ্যে এ ধরনের বিয়ের রেওয়াজ আছে। তাই, প্রতিবেশীরা জানলেও বিয়ে থামানোর চেষ্টা করেনি বা পুলিশকেও খবর দেওয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি।

এ ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। সদর মহকুমা শাসকের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটিকে দ্রুত রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা শাসক বেদ প্রকাশ জানিয়েছেন, রিপোর্ট হাতে আসার পরেই অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। নাবালিকাকে বিয়ে করে আইন ভেঙেছেন ওই ব্যক্তি।






মন্তব্য চালু নেই