মেইন ম্যেনু

৭টি উপায়ে জীবন থেকে দূর করুন হতাশা

আধুনিক জীবনে ব্যস্ততার বৃদ্ধির সাথে সাথে বৃদ্ধি পেয়েছে স্ট্রেস টেনশন। আর এই স্ট্রেস এবং টেনশন থেকে হতাশা তৈরি হয়। হতাশা এমন একটি জিনিস যা মানুষকে তিলে তিলে শেষ করে দেয়। হতাশা শুধু মানসিক অশান্তিই সৃষ্টি করে না, এর কারণে নানান অসুখ যেমন লো ব্লাড প্রেশার, উচ্চ রক্তচাপ এমনকি ডায়াবেটিসও হতে পারে। তাই হতাশাকে বাড়তে না দিয়ে এটি প্রতিরোধ করা উচিত। হতাশা দূর করতে সাহায্য করে এমন কিছু উপায় নিয়ে আজকের এই ফিচার।

১। ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার

খাবারের সাথে হতাশার সম্পর্ক আছে। কিছু খাবার আছে যা মুড ঠিক করে দিতে পারে। ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার যেমন ডিম, ক্যাপসিকাম, পালং শাক, চিজ, মাছ ইত্যাদি খাবার মস্তিষ্কে পুষ্টি যুগিয়ে মুড ভাল করতে সাহায্য করে।

২। ব্যায়াম

ব্যায়াম হতাশা দূর করে মন ভাল করতে সাহায্য করে। ব্যায়াম মস্তিষ্কে নরএপিনেফ্রিন এবং সেরোটোনিন নামক দুটি উপাদান নিঃসৃত করে যা মন ভাল রাখতে সাহায্য করে। P. Murali Doraiswamy, professor of psychiatry and behavioral sciences at Duke University School of Medicine, in Durham, N.C. সপ্তাহে তিন থেকে পাঁচবার ২০ থেকে ৩০ মিনিট নিয়মিত ব্যায়াম করার পরামর্শ দিয়েছেন।

৩। এলাচ

এলাচ শরীর ডিটক্সিফাই করে এবং কোষ সতেজ করে তোলে। যা মন খারাপ দূর করে দিতে সাহায্য করে। এক কাপ কুসুম গরম পানিতে আধা চা চামচ এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এটি প্রতিদিন পান করুন। এছাড়া গোসলের পানিতে কয়েক ফোঁটা এলাচ অয়েল মিশিয়ে নিন। এই পানিতে শরীর ভিজিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট।

৪। জায়ফল

জায়ফলকে মস্তিষ্কের টনিক বলা হয়। এটি স্ট্রেস, অবসাদ দূর করে মুড উন্নত করে থাকে। আমলকীর রসের সাথে আট চা চামচ জায়ফলের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এটি প্রতিদিন পান করুন। তবে হ্যাঁ সরাসরি জয়ফল গুঁড়ো খাবেন না, এটি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

৫। আপেল এবং কলা

কলা মস্তিষ্কে সেরোটোনিন নিঃসরণ করে যা মন ভাল করতে সাহায্য করে। এক কাপ দুধের সাথে একটি আপেল খান, এটি আপনাকে দ্রুত কাজের শক্তি দেবে। আপনি চাইলে এর সাথে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে নিতে পারেন।

৬। কাজুবাদাম

কাজুবাদাম জিঙ্কের অন্যতম উৎস। এক আউন্স কাজুবাদামে ১১% আরডিএ (RDA) পরিমাণ জিঙ্ক রয়েছে। অর্থাৎ জিঙ্কের দৈনিক চাহিদার ১১ শতাংশ দিতে পারে এক আউন্স কাজুবাদাম। শরীরে জিঙ্কের অভাব দেখা দিলে হতাশা, উদ্বেগ দেখা দেয়। আমাদের শরীর জিঙ্ক সংরক্ষণ করে রাখে না, তাই প্রতিদিন অল্প পরিমাণের হলেও জিঙ্ক খাওয়া উচিত। এটি আমাদের দুশ্চিন্তা দূর করে মন ভাল করে দেয়।

৭। ফিশ অয়েল

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের অভাবের কারণে মানুষ ঘন ঘন হতাশায় ভুগে থাকেন। প্রতিদিনকার খাবারে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যেমন স্যামন, সার্ডিনসহ বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ রাখুন। এছাড়া ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্টারি খেতে পারেন।






মন্তব্য চালু নেই