মেইন ম্যেনু

৭৭ বছরে বন্ধুত্বে ৫৬ হাজার চিঠি

সাতাত্তর বছর ধরে ঘনিষ্ঠ বান্ধবী ক্যাথির কাছে প্রতিদিন একটি করে চিঠি লিখেছেন ৯৭ বছর বয়সী মেরি।

কিন্তু তারা একটি শপথ নিয়েছিলেন। তা হলো, প্রতিটি চিঠি পড়ার পর তারা সেটি পুড়িয়ে ফেলবেন।

ফলে এ পর্যন্ত এই জুটি ৫০ হাজারের বেশি চিঠি বিনিময় করেছেন। যদিও তার কোন নিদর্শন নেই, কারণ সেগুলো সবই পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

মেরি বলছেন, প্রতিদিনই ক্যাথির কাছে আমি চিঠি লিখতাম। একবার পড়ে ফেলার পর প্রতিটি চিঠি আমরা পুড়িয়ে ফেলতাম, যাতে এসব চিঠি কারো হাতে না পড়ে।

৭৭ বছরে তারা দুজন মিলে ৫৬,২১০টি চিঠি বিনিময় করেছেন। ২০১৬ সালে ক্যাথি মারা যাবার পর তাদের ৭৭ বছরের পত্রমিতালির অবসান হয়।

১৯২৯ সালে ক্লাস টেনে পড়ার সময় তাদের পরিচয় হয়। এরপর থেকেই তাদের এই বন্ধুত্ব চলতে থাকে।

কিন্তু ১৯৩৯ সালে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরুর দিকে কাউকে কিছু না জানিয়ে হ্যারি নামের এক যুবককে বিয়ে করে কর্ণওয়েল চলে যান ক্যাথি। সেসময় থেকে তাদের দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ হলেও চিঠির যোগাযোগ শুরু হয়।

প্রতিদিনের প্রতিটি চিঠিতে তাদের নিজেদের খুঁটিনাটি সব গল্প থাকতো। এমনকি একান্ত ব্যক্তিগত কথাগুলোও।

মেরি বলছেন, শুধু চিঠির বক্তব্য দিয়েই একবার ক্যাথি আমার বিয়ে টিকিয়ে দিয়েছিল।

৮৭ বছর টিকে ছিল তাদের বন্ধুত্ব। কিন্তু এ বছর ক্যাথি মারা যাবার পর বন্ধ হয় তাদের পত্র মিতালী।

মেরি বলছেন, এখনো প্রতিদিন আমি ক্যাথিকে চিঠি লেখার শূন্যতা বোধ করি। তার মতো আর কেউ ছিল না।






মন্তব্য চালু নেই