মেইন ম্যেনু

৮টি প্রাকৃতিক উপায়ে নতুন মায়েরা বুকের দুধ বৃদ্ধি করুন

একজন শিশুর জন্য মায়ের দুধের চেয়ে ভাল কোন খাবার হতে পারে না। এতে প্রাকৃতিক অ্যান্টি বায়োটিক আছে যা শিশুর শরীরে ইনফেকশন রোধ করতে সাহায্য করে থাকে। যে সকল শিশুরা মায়ের দুধ খাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়, তারা শারীরিক ভাবে দুর্বল হয়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। অনেক সময় শিশুরা মার কাছ থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণের দুধ পায় না। প্রাকৃতিক কিছু উপায়ে মায়ের বুকের দুধ বৃদ্ধি করা সম্ভব।

১। প্রচুর পরিমাণে পানি পান

বুকের দুধ বৃদ্ধি করার সবচেয়ে সহজ এবং কার্যকরী উপায় হল শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা। আর এইজন্য প্রয়োজন প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা। প্রতিদিন ৮ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করুন। এটি প্রাকৃতিকভাবে বুকের দুধ বৃদ্ধি করবে।

২। ঘন ঘন বাচ্চাকে দুধ দিন

চেষ্টা করুন বাচ্চাকে দিনে তিন ঘন্টা এবং রাতে চার ঘন্টা পর পর দুধ খেতে দিতে। যত বেশি দুধ খাওয়ানো হয় তত বেশি দুধ উৎপাদন হয়ে থাকে।

৩। গরম দুধ এবং জিরা পান করুন

এক গ্লাস গরম দুধের সাথে এক চা চামচ জিরা গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এবার এটি প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন। এটি বুকের দুধ বৃদ্ধি করার সাথে সাথে শরীরে আয়রনের ঘাটতি দূর করে থাকে।

৪। পাশ পরিবর্তন

একটি স্তনের দুধ সম্পূর্ণ খাওয়া হয়ে গেলে তবে আরেকটি স্তনে দুধ খেতে দেবেন। খুব ঘন ঘন স্তন পরিবর্তন করবেন না। দুধ খাওয়ানোর সময় বাচ্চাকে কিছুটা উপরের দিকে তুলে ধরে শরীর থেকে কিছুটা দূরে রেখে দুধ খাওয়ান। এভাবে বাচ্চা বেশি দুধ পাবে।

৫। দুধ খাওয়ানোর সময় নির্দিষ্ট করবেন

দুধ খাওয়ানোর সময় নির্দিষ্ট করবেন না। যখন দুধ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকবে তখনই বাচ্চাকে দুধ খাওয়ানোর চেষ্টা করুন। চেষ্টা করুন দুধ খাওয়ানোর জন্য উভয় স্তন ব্যবহার করতে। এতে দুই স্তনে দুধ বৃদ্ধি পাবে।

৬। খাদ্য অভ্যাস পরিবর্তন

প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় পরিবর্তন আনুন। সবুজ শাক সবজি, ডিম, দুধ, রসুন, আঙ্গুরের রস, ফলের রস, মুরগির মাংস প্রতিদিন খাওয়ার চেষ্টা করুন। এই খাবারগুলো বুকের দুধ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে থাকে।

৭। গরম দুধ এবং দারুচিনি

এক গ্লাস গরম দুধের সাথে এক চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। স্বাদ বৃদ্ধির জন্য এতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি প্রতিদিন পান করুন। এটি আপনার বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে।

৮। রসুন

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ৩ কোয়া রসুন খেতে পারেন। এটিও আপনার বুকের দুধ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। কাঁচা রসুন খেতে না পারলে রান্নায় রসুন ব্যবহার করুন। এছাড়া এক কাপ পানিতে ৩ কোয়া রসুন দিয়ে সিদ্ধ করতে দিন। পানি কমে অর্ধেক হয়ে আসলে এতে এক কাপ দুধ দিয়ে দিন। ফুটে উঠলে চুলা নিভিয়ে দিন। স্বাদ বৃদ্ধির জন্য মধু মিশাতে পারেন। এটি প্রতিদিন সকালে পান করুন।

পর্যাপ্ত পরিমাণের ঘুমও বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে থাকে। দৈনিক খাবার কিছু পরিমাণে বাদাম রাখতে পারেন। দুশ্চিন্তা না করে বাচ্চাকে নিয়মিত দুধ খাওয়ানোর চেষ্টা করুন। দেখবেন বাচ্চা পর্যাপ্ত পরিমানের দুধ পাচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই