মেইন ম্যেনু

টাকা উদ্ধারে নেই কোনো অগ্রগতি

৮০০ কোটি টাকা উধাও: ক্লু পাচ্ছে না বাংলাদেশ ব্যাংক

বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংক থেকে হ্যাকারদের ৮শ` কোটি টাকা লুটের কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছেন না বাংলাদেশ ব্যাংক। ঘটনার প্রায় এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও কোনো ক্লুও পাচ্ছে না ব্যাংকটি। টাকা উদ্ধারেরও নেই কোনো অগ্রগতি। এছাড়া কোন কোন ব্যাংকে অর্থ লুটের ঘটনা ঘটেছে তারও সঠিক তথ্য নেই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ব্যাংক ঘটনার কোনো ক্লু পাচ্ছে না। এছাড়া কোন চ্যালেনে কিভাবে এর তদন্ত করবে তাও বুঝে ওঠতে পারছে না বাংলাদেশ ব্যাংক।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, আমরা বিষয়টি গভীরভাবে খতিয়ে দেখছি। শিগগিরই এর অগ্রগতি জানাতে পারব।

জানা গেছে, ঘটনার পর বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর নিজেই দুইবার সংশ্লিষ্ট ডেপুটি গভর্নর, নির্বাহী পরিচালক ও মহাব্যবস্থাপকদের নিয়ে বৈঠক করেছেন। বৈঠকে দ্রুত এর প্রকৃত চিত্র বের করার নির্দেশ দেন। তবে সোমবার পর্যন্ত কোনো অগ্রগতির খবর দিতে পারেননি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

সূত্রে আরো জানা যায়, বাংলাদেশ ব্যাংক পুরো ঘটনায় বিব্রত হলেও ঘটনাটি কিভাবে ঘটল, কারা এর সঙ্গে জড়িত তা বের করতে পারছে না। দেশের আর্থিক গোয়েন্দা বিভাগও বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফ থেকে সহায়তা চাওয়া হয়েছে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ ও সরকারের একটি সংস্থার কাছে।

তবে বিষয়টি সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন গভর্নর ড. আতিউর রহমান। একইসঙ্গে ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য বিভাগীয় উদ্যোগ নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ফিলিপাইনের হ্যাকাররা বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংকের ৮শ` কোটি টাকা পাচার করে দিয়ে গেছে বলে গত মঙ্গলবার খবর প্রকাশ হয়। ফিলিপাইনের সংবাদ মাধ্যমগুলো এ ধরনের খবর প্রকাশ করে। আওয়ার নিউজ বিডিতেও ‘বাংলাদেশের ৮০০ কোটি টাকা নিয়ে গেছে হ্যাকাররা!’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই