মেইন ম্যেনু

৮ মাসের শিশু কন্যাকে ধর্ষনের চেষ্টা

পাবনার চাটমোহর উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের বরদানগর গ্রামে ৮ মাসের এক শিশু কন্যাকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শিশুটিকে ৩ দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গ্রাম প্রধানরা শালিস বৈঠকের মাধ্যমে ৬০ হাজার টাকার বিনিময়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দিয়েছে।

মোটা টাকায় ম্যানেজ করা থানা পুলিশকে। ৫০ হাজার টাকা শিশুটির পরিবারকে দিতে এবং ১০ হাজার টাকা অন্যদের ম্যানেজ করার জন্য ধার্য করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগে জানা যায়, গত ১৩ নভেম্বর শুক্রবার ছাইকোলা ইউনিয়নের বরদানগর গ্রামের শফিকুল ইসলামের স্ত্রী তার ৮ মাসের শিশু সন্তানকে নিয়ে কাজ করছিলেন।

এ সময় প্রতিবেশী লম্পট আব্দুর রহমানের ছেলে আরিফ হোসেন (২০) শিশুটি তার মায়ের কাছ থেকে নিয়ে কোলে নেয়। এক পর্যায়ে ঘরের মধ্যে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। শিশুটির আর্তচিৎিকারে তার মা দৌড়ে এসে দেখেন আরিফ শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টা করছে। লম্পট আরিফ শিশুটির মাকে দেখামাত্র পা জড়িয়ে ধরে বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য আকুতি মিনতি করে। এক পর্যায়ে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষে শিশুকে বাড়ি পাঠানো হয়। এরই মধ্যে লম্পট আরিফ ও তার পরিবারের সদস্যরা মোটা টাকার বিনিময়ে থানা পুৃলিশ ও কথিত প্রধানদের ম্যানেজ করে।

শালিস বৈঠকে আরিফকে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয় শফিকুল ইসলামকে। শিশু নির্যাতনকারী আরিফ মাত্র ৬০ হাজার টাকায় পুলিশ ও মাতববরদের যোগ সাজসে পার পেয়ে যায়। এলাকার ইউপি সদস্য সাহেব আলী এই শালিসের নায়ক।

শিশুটির মা বলেন, “ যা হবার তা হয়েছে। বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে। পেপারে লেইখ্যা কী হবি।” নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা আর অন্যগারে ম্যানেজ করা জন্য ১০ হাজার টাকা জরিমানা করিছে পরামানিকরা।

নিমাইচড়া ইউনিয়নের আওয়ামীগের সভাপতি প্রকৌশলী কামরুজ্জামান খোকন বলেন, বিষয়টি মীমাংস হয়ে গেছে, থানাতে সমাধান হয়েছে।

টাকার বিনিময়ে থানা পুলিশকে ম্যানেজ করার বিষয়টি অস্বীকার করে চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ (প্রশাসন) সুব্রত কুমার সরকার বলেন, শিশু ধর্ষনের কোন অভিযোগ কেউ দেয়নি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এলাকাবাসী শিশু নির্যাতনকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই