মেইন ম্যেনু

৯০ বছর বয়সে সমকামী বিয়ে !

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এক সিনেটর হারিস ওফোর্ড। বয়স এখন ৯০ বছর। ১৯৯৬ সালে মারা গেছেন তার স্ত্রী ক্লারা। তাদের রয়েছে তিনটি সন্তান। তিনি এখন জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিচ্ছেন আরেকজন পুরুষকে, যার নাম ম্যাথিউ চার্লটন। তার বয়স ৪০ বছর। তাকেই বিয়ে করবেন হারিস ওফোর্ড। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

নিউ ইয়র্ক টাইমসে একটি মতামত কলাম লিখেছেন হারিস। তাতে তিনি সমকামী বিয়ে বা সমলিঙ্গে বিয়ের পক্ষে জোরালো সমর্থন প্রকাশ করেন। বলেছেন, এমন একটি সময়ে তিনি বেঁচে থাকতে পেরে খুব খুশি, যখন বিয়ে এমন একটি শক্তিশালী বন্ধন (সমকামী)কে সমর্থন করে। তার স্ত্রী ক্লারা মারা যান লিউকেমিয়ায়। তার ৫ বছর পরে ম্যাথিউ চার্লটনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। সেই ম্যাথিউকেই তিনি বিয়ে করতে যাচ্ছেন।

তিনি লিখেছেন, যাদেরকে আমি ভালোবাসি তাদেরকে আমি লিঙ্গগত বৈশিষ্ট্য দিয়ে বিভক্ত করি না। আমি একজন চমৎকার নারীর সঙ্গে অর্ধ শতাব্দী পার করেছি বিবাহিত জীবনে। দ্বিতীয়বার আমি আবার জীবনে সুখ খুঁজে পেয়েছি। এতে আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জুনে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট সমকামিতা বা সমলিঙ্গে বিয়ের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে। এতে সমকামী নারী বা পুরুষের বিয়ে বৈধতা পায়।

হারিস তার রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন ১৮ বছর বয়সে। তিনি প্রতিষ্ঠা করেন স্টুডেন্ট ফেডারেলিস্টস। ১৯৯১ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত তিনি পেনসিলভানিয়াতে ডেমোক্রেট দলের সিনেটর ছিলেন। যোগ দিয়েছিলেন সুশীল সমাজের অধিকারবিষয়ক আন্দোলনে। এমনকি জনএফ কেনেডির নির্বাচনী প্রচারণায়ও তিনি অংশ নিয়েছিলেন। পরে সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গেও কাজ করেছেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই