মেইন ম্যেনু

​‘অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জাতীয় পরিচয়পত্র প্রাপ্তির ক্যাটাগরি চূড়ান্ত হয়নি’

অপ্রাপ্ত বয়স্কদের কখন কিভাবে কোন বয়সি নাগরিককে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে তা এখনও নির্বাচন কমিশন (ইসি) চূড়ান্ত করেনি বলে সংসদে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার সকালে জাতীয় সংসদে বেগম নাসিমা ফেরদৌসীর টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য জানান প্রধানমন্ত্রী।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন, ২০১০ অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন নিবন্ধিত সকল ভোটারকে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করেছে এবং এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

উপরিউক্ত আইনটি অধিকতর সংশোধন করে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন আইন (সংশোধন),২০১৩’র ৪০নং আইনের ৫(২)ধারা অর্ন্তভুক্ত করার ফলে ইসি অন্যান্য নাগরিককে নির্ধারিত পদ্ধতি ও শর্ত সাপেক্ষে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করতে পারবে।এ প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন সকল নাগরিকের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরুর বিষয়ে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

তবে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের ছবি ও হাতের আঙ্গুলের ছাপ (বায়োমেট্রিক ফিচার) সম্পূর্ণভাবে স্পষ্ট না হওয়ার কারণে কখন কিভাবে কোন বয়সি নাগরিককে জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হবে তা এখনও কমিশন কর্তৃক চূড়ান্ত করা হয়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি।

পর্যায়ক্রমে এ কার্যক্রম চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

সেলিনা বেগমের টেবিলে উত্থাপিত আরেক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পেট্রোল বোমা হামলার নির্দেশদানকারী হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিচারে ট্রাইব্যুনাল গঠনের পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি বলেন, পেট্রোল বোমা হামলার নির্দেশদানকারী খালেদা জিয়া ও তার সহযোগীসহ সব অপরাধীর নামে দায়ের করা মামলাগুলো বিচার করার জন্য সন্ত্রাস বিরোধী আইন- ২০০৯ এর ২৭ ধারা অনুযায়ী সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের বিধান রয়েছে। ভবিষ্যতে উক্ত আইনের ২৭ ধারা অনুযায়ী ট্রাইব্যুনাল গঠনের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ট্রাইব্যুনাল গঠিত না হওয়া পর্যন্ত আইনের অধীন অপরাধসমূহের দ্রুত বিচার কার্য সম্পন্ন করার জন্য দায়রা জজ বা দায়রা কর্তৃক অতিরিক্ত দায়রা জজের কাছে স্থানান্তরিত হওয়ার ক্ষেত্রে, অতিরিক্ত দায়রা জজকে বিচারকার্য সম্পন্ন করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে পেট্রোল বোমা হামালার প্রতিটি ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। এসব মামলার তদন্ত সুষ্ঠু ও দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং তা যথাযথ প্রতিপালনের বিষয়টি মনিটর করা হচ্ছে। এ সব মামলার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ মামলাগুলো দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের ব্যবস্থা করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট নেত্রী খালেদা জিয়ার হুকুমে এ বছর ৫ জানুয়ারি থেকে চলমান হরতাল ও অবরোধকালীন এবং গত ২ জুন পবিত্র শবে বরাতের রাতে কুমিল্লায় যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোল বোমায় ৬ জনসহ ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে ১৩৪ জনকে হত্যা করা হয়েছে। তাদের ইস্যুবিহীন কথিত আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের ফলে ১ হাজার ৩৯৫টি যানবাহন, ১৩ দফা ট্রেনে এবং ৬টি লঞ্চে নাশকতা চালানো হয়।

নিহতদের স্বজন ও আহতদের চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের জন্য আর্থিক সাহায্য করা হচ্ছে। এটা চলমান রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ ছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত যানবাহনের মধ্যে এ পর্যন্ত ৮৬০টি যানবাহনের বিপরীতে সংশ্লিষ্ট মালিকদের ৯ কোটি ৫৭ লাখ ৭৯ হাজার ১৪০ টাকা সহায়তা করা হয়েছে। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত আরো ২৮৫টি গাড়ির জন্য সংশ্লিষ্ট মালিকদের ৭ কোটি ২১ লাখ ১২ হাজার টাকার চেক প্রস্তুত করা হয়েছে, যা শিগগিরই বিতরণ করা হবে বলেওে উল্লেখ করেন সংসদ নেতা।






মন্তব্য চালু নেই